আজকেরডিল.কম : বাংলাদেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন শপিং মল। - Largest online shopping website in Bangladesh
mens-shopping ছেলেদের শপিং
Brands
womens-fashion মেয়েদের শপিং
Brands
home-decor গৃহসজ্জা
Brands
household গৃহস্থালী সামগ্রী
Brands
kitchen-dining কিচেন এন্ড ডাইনিং
Brands
watches-clock ঘড়ি
Brands
jewelry গহনা
cosmetics কসমেটিক্স
Brands
computer-accessories কম্পিউটার এক্সেসরিজ
Brands
gadgets গ্যাজেটস
Brands
grocery-food-items গ্রোসারী ও খাদ্যসামগ্রী
সকল শপিং ক্যাটাগরি >>

বাংলাদেশের বৃহত্তম অনলাইন মার্কেটপ্লেস হিসাবে সুবিশাল এক গ্রাহকগোষ্ঠীর তথ্যভান্ডারে রয়েছে আজকেরডিল এর এক্সেস বা প্রবেশাধিকার। ক্রেতা ওয়েবসাইটে কোন পণ্যটি দেখছেন বা কিনছেন তা ছাড়াও ক্রেতার ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ সংক্রান্ত তথ্য ইত্যাদি সবকিছুতেই রয়েছে এই এক্সেস। আজকেরডিল সর্বদাই ক্রেতার আস্থার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকে। তাই আমরা আজকেরডিল এ রেজিস্টার্ড ক্রেতার ক্রয়সংক্রান্ত ও অন্যান্য তথ্যের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর ।

যেসব তথ্য সংগ্রহ করা হয় এবং যেভাবে সংগ্রহ করা হয়

অধিকাংশ ক্ষেত্রে ক্রেতা সরাসরি আজকেরডিল এ তথ্য দিয়ে থাকেন । যখন তারা একটি ইউজার একাউন্ট তৈরি করেন, তখন তারা তাদের ব্যক্তিগত তথ্য যেমন ই-মেইল এড্রেস, পাসওয়ার্ড, নাম, টেলিফোন নাম্বার ইত্যাদি সরবরাহ করে থাকেন । যখন কোন ক্রেতা পণ্য অনুসন্ধান করেন ও সাইট ব্রাউজ করেন, তখন আজকেরডিল ক্রেতার ব্যক্তিগত তথ্য সহ কি খুঁজছেন বা দেখছেন সেসব তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংরক্ষণ করে যার মধ্যে আইপি এড্রেস, ডিভাইস আইডি, ডিভাইস টাইপ, ব্রাউজার টাইপ, ব্রাউজার ভার্সন, ভৌগলিক অবস্থান, কানেকশন ইত্যাদি সংক্রান্ত তথ্য অন্তর্ভূক্ত । পাশাপাশি, যখন ক্রেতা আজকেরডিল থেকে কোনো পণ্য ক্রয় করেন, তখন ক্রেতা তাঁর ব্যক্তিগত আর্থিক তথ্য যেমন ডেবিট/ ক্রেডিট কার্ড, একাউন্ট নাম্বার, ঠিকানা, ডেলিভারীর টেলিফোন নাম্বার, ক্ষেত্র বিশেষে জাতীয় পরিচয় পত্র বা ড্রাইভিং লাইসেন্স নাম্বার ইত্যাদি সংক্রান্ত তথ্য আজকেরডিল কে প্রদান করেন। একইসাথে ক্রেতা পণ্যের রিভিউ দিয়ে থাকেন এবং আজকেরডিল এর কাস্টমার সার্ভিসে যোগাযোগ করে থাকেন । আজকেরডিল এসব উৎস থেকে প্রাপ্ত সকল ধরনের তথ্য সংরক্ষণ করে থাকে । আজকেরডিল সাধারণত কুকিস (cookies) এবং ওয়েব বিকন (web beacon) এর সাহায্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ক্রেতার তথ্য সংরক্ষণ করে থাকে ।

সংগৃহীত তথ্য আজকেরডিল যেভাবে ব্যবহার করে থাকে

ক্রেতার কাছ থেকে সংগৃহীত অধিকাংশ তথ্য আজকেরডিল ব্যবহার করে থাকে ক্রেতাকে বৈধ ও নির্বিঘ্ন সেবা প্রদানের জন্য- যার মধ্যে রয়েছে আর্থিক লেনদেন, ক্রেতার সঙ্গে যোগাযোগ, গ্রাহক সেবা প্রদান, জালিয়াতি সনাক্তকরণ, নিরাপত্তা হুমকি প্রতিরোধ, ইউজার এগ্রিমেন্ট এর লঙ্ঘন প্রতিরোধ, অবৈধ কর্মকান্ড প্রতিরোধ ইত্যাদি । আজকেরডিল বিভিন্ন কারণে নির্দিষ্ট কিছু প্রতিষ্ঠানের সাথে সংগৃহীত তথ্য শেয়ার করতে পারে। আজকেরডিল এর ব্যবসায়িক অংশীদার যেমন আজকেরডিল এর পণ্য বিক্রেতা (seller) যারা আজকেরডিল এ স্টোর পরিচালনা করেন অথবা যাদের সাথে অংশিদারীত্বের ভিত্তিতে বাছাইকৃত বিভিন্ন গ্রাহকগোষ্ঠীকে আজকেরডিল নিজেদের বিভিন্ন অফার প্রেরণ করে থাকে- এ ধরনের প্রতিষ্ঠানের সাথে আজকেরডিল গ্রাহকের তথ্য শেয়ার করতে পারেন ।পাশাপাশি আজকেরডিল এসব তথ্য সেবাদানকারী বিভিন্ন তৃতীয় পক্ষ (third parties), যেমন পণ্য পরিবহন সংস্থা, ডাটা অ্যানালিস্ট, ক্রেডিট কার্ড পেমেন্ট গেটওয়ে প্রতিষ্ঠান, কাস্টমার সার্ভিস প্রোভাইডার, মার্কেটিং সার্ভিস প্রোভাইডার ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানের সাথে শেয়ার করতে পারে। দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী কোনো অপরাধমূলক কর্মকান্ডের তদন্তের স্বার্থেও আজকেরডিল এসব তথ্য আইন শৃংখলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষের বৈধ অনুরোধ সাপেক্ষে তাদের সাথে শেয়ার করতে পারে। উপরোক্ত সবগুলো ক্ষেত্রে আজকেরডিল এই মর্মে নিশ্চয়তা প্রদান করে যে আজকেরডিল যাদের সাথে এসব তথ্য শেয়ার করবে তারা প্রত্যেকেই আজকেরডিল এর মতো একইভাবে এসব তথ্যের পূর্ন নিরাপত্তা ও গোপনীয়তা নিশ্চিত করবেন ।

ক্রেতার করণীয়

তথ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ক্রেতা কর্তৃক অপর্যাপ্ত তথ্য প্রদান আজকেরডিল এর সেবা প্রদানকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে। কাজেই অপর্যাপ্ত তথ্য প্রদানের পরিবর্তে ক্রেতাসাধারণ তাঁদের প্রদানকৃত তথ্য নিয়ন্ত্রনের জন্য নির্দিষ্ট কিছু পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারেন। যেমনঃ

  • আজকেরডিল থেকে কোনো পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে ক্রেতার প্রয়োজনের অতিরিক্ত তথ্য প্রদানের প্রয়োজন নেই; যতটুকু তথ্য প্রদান প্রয়োজন ক্রেতা ঠিক ততটুকু তথ্যই দিবেন ।যেমন একটি পণ্য ক্রয়ের জন্য ক্রেতা শুধুমাত্র প্রোফাইল, উইশ লিস্ট এবং রিভিঊর জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য দিবেন।
  • ক্রেতা তাঁর অনলাইন একাউন্টের সাহায্যে তাঁর প্রদানকৃত বেশিরভাগ তথ্য দেখতে পারেন, পর্যালোচনা করতে পারেন বা পরিবর্তন করতে পারেন ।
  • ক্রেতা তাঁর মোবাইল ডিভাইসের লোকেশন মডিফাই বা ডিজএবলও করে রাখতে পারেন ।
  • ক্রেতা তাঁর ওয়েব ব্রাউজারের কুকিস (cookies) এর সেটিং পরিবর্তনের মাধ্যমে নতুন কুকি রিসিভের ক্ষেত্রে নোটিফিকেশন পেতে পারেন; তিনি ইচ্ছে করলে কুকিস (cookies) ডিজএবল করেও রাখতে পারেন ।
  • ক্রেতা ইচ্ছে করলে তাঁর একাউন্ট বন্ধ করে দেয়ার অনুরোধও করতে পারেন; কিন্তু সেক্ষেত্রে আজকেরডিল এর ডাটাবেজ এ তাঁর সকল তথ্য সংরক্ষিত থাকবে যা পরবর্তীতে বিভিন্ন বৈধ প্রয়োজন যেমন জালিয়াতি প্রতিরোধ, গ্রাহকের কাছ থেকে পূর্বের কোনো পাওনা সংগ্রহ, আইন শৃংখলা রক্ষাকারী কর্তৃপক্ষের কাজের সহায়তার জন্য বা আজকেরডিল এর কোনো কারিগরি সমস্যা সমাধানের জন্য ব্যবহার করা হতে পারে ।

আপনার সম্মতি

আজকেরডিল ওয়েবসাইট ব্যবহারের মাধ্যমে বা এখানে আপনার তথ্য প্রদানের মাধ্যমে আপনি এই প্রাইভেসি পলিসি অনুযায়ী আপনার প্রদত্ত তথ্য সংগ্রহ, ব্যবহার ও শেয়ার করার ব্যাপারে আপনার সম্মতি প্রদান করেছেন ।